হাইলাইট
।।উফ কী গরম ! Part-189।।রাজ্য পুলিশের ডিজি পদে ফিরলেন রাজীব কুমার।।টালা ঝিলপার্ক, রাসেল স্ট্রিট, পাটুলিতে হচ্ছে স্ট্রিট ফুড হাব।।মানবিক মুখ্যমন্ত্রী : প্রাক্তন কারামন্ত্রীর চিকিৎসার দায়িত্ব গ্রহণ।।নামী রেস্তোরাঁর বিরিয়ানিতে বিষ রং পুরসভার জরিমানা ৩ লক্ষ টাকা।।উফ কী গরম ! Part-188।।শপথের জন্য রাজ্যপালকে আর্জি,রাজ্যপাল টালবাহানা করলে শপথ পাঠ করাবেন অধ্যক্ষ।।মিথ্যা ন্যারেটিভ ছড়িয়ে বাংলায় দাঙ্গার চক্রান্ত, অসমের গরু পাচারের ভিডিও হুগলির ঘটনা বলে প্রচার।।আকাশ দখল ঠেকাতে কেএমসি’র নয়া নীতি, তৈরি হবে নো হোর্ডিং জোন।।ত্রাতা মার্তিনেজ, কলম্বিয়াকে হারিয়ে কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা।।গাছেদের সুরক্ষায় কলকাতায় চালু হবে ট্রি অ্যাম্বুলেন্স।।শতবর্ষে বাদল সরকার,শহরে চলছে বাদল থিয়েটার মেলা।।আততায়ী কে? ২০ বছরের মেধাবী ছাত্র টমাস ম্যাথিউ ক্রুকস।।উফ কী গরম ! Part-187।।মার্কিন বন্দুকবাজের হাতে খুন ৪ প্রেসিডেন্ট, ৮ অল্পের জন্য রক্ষা
বিবি
Avinash

উফ কী গরম ! Part-189

উফ কী গরম ! HOT BIKINI নিকোল মিনেতি ৩৬৫ দিন। কম বয়সেই উচ্চতার শিখরে উঠেছিলেন।এক একটা সিঁড়ি পার করে এখন তিনি অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ।টেলিভিশন থেকে

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

রাজ্য পুলিশের ডিজি পদে ফিরলেন রাজীব কুমার

৩৬৫ দিন। ফিরে এলেন রাজীব কুমার। ফিরলেন রাজ্য পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল পদে। লোকসভা নির্বাচনের পরে রাজ্য পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল রাজীব কুমারকে সরিয়ে দিয়েছিল জাতীয় নির্বাচন

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

টালা ঝিলপার্ক, রাসেল স্ট্রিট, পাটুলিতে হচ্ছে স্ট্রিট ফুড হাব

৩৬৫ দিন। কলকাতা শহরের স্ট্রিট ফুডের সংস্কৃতি দীর্ঘদিনের। ডেকারস লেন থেকে শুরু করে টেরিটি বাজারের স্ট্রিট ফুড বিশ্বের যে কোন দেশের স্ট্রিট ফুডের সঙ্গে পাল্লা

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

মানবিক মুখ্যমন্ত্রী : প্রাক্তন কারামন্ত্রীর চিকিৎসার দায়িত্ব গ্রহণ

৩৬৫দিন। মানবিক মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের প্রাক্তন কারামন্ত্রী তথা আরএসপির নেতা বিশ্বনাথ চৌধুরীর চিকিৎসার জন্য উদ্যোগী হলেন মুখ্যমন্ত্রী। ৭ বারের আরএসপি বিধায়ক দীর্ঘ দিন ধরে ক্যানসারে ভুগছেন।

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

নামী রেস্তোরাঁর বিরিয়ানিতে বিষ রং পুরসভার জরিমানা ৩ লক্ষ টাকা

৩৬৫ দিন।কলকাতা পুরসভার অভিযানে সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য।পার্ক সার্কাসের নামি বিরিয়ানির দোকানে মেশানো হচ্ছে রং।সেই রং যে বিষাক্ত তা ধরা পড়ল পরীক্ষা করে।রেস্তরাঁটির বিরিয়ানির নমুনা

Read More »
বিবি
Avinash

উফ কী গরম ! Part-188

উফ কী গরম ! HOT BIKINI মিডিয়াম জিওভেনালি ৩৬৫ দিন। জনপ্রিয় মডেল তো বটেই।তবে বডি বিল্ডার হিসেবেই বেশি বিখ্যাত তিনি।কিভাবে নিজের শরীর-স্বাস্থ্য সুস্থ রাখেন তিনি

Read More »
Facebook
Twitter
LinkedIn
WhatsApp
Email
Print

শিলিগুড়িতে ২ আহত শিশুর চিকিৎসার তদারকি করে অভিষেকের অভিযোগ, আবাসের টাকা পেলে বাচ্চা দুটো আহত হত না

৩৬৫দিন। দুই শিশু সহ আহতদের দেখতে হাসপাতালে অভিষেক
ঝড়ে দুজন শিশু গুরুতর ভাবে চোট পেয়েছে মাথায়। রোহিত রায় এবং পিউ রায়, এই দুই শিশুকে প্রথমে জলপাইগুড়ি মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তারপর সেখান থেকে তাদের শিলিগুড়ির নিউরো সাইন্স হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। মুখ্যমন্ত্রী এই শিশু দুটির খবর নেন এবং অভিষেককে নির্দেশ দেন যাবতীয় চিকিৎসা যেন ঠিকঠাক হয় সে দিকটা দেখার। সেই অনুযায়ী সোমবার সকালে অভিষেক নিউরো সাইন্স হাসপাতালে যান। সেখানে গিয়ে চিকিৎসকদের সঙ্গে কথাবার্তা বলেন। দুই শিশুর পরিবারের সঙ্গেও কথাবার্তা হয় অভিষেকের। এছাড়াও অন্যান্য আহত ব্যক্তিদের সঙ্গে দেখা করেন অভিষেক। অভিষেক বলেন, ‘এখানে এসে ডাক্তারদের সঙ্গে কথা বললাম। যারা এখানে ভর্তি রয়েছেন তাদের ভাইটাল স্ট্যাটাস স্ট্যাবল রয়েছে। রোহিত এবং পিউ’র বাবা-মা সবাই দিন-আনি দিন খায়। তাদের নিউরো সাইন্সে শিফট করা হয়েছে। আমি বললাম ঈশ্বরের কৃপায় ওরা দ্রুত বাড়ি ফিরে যাবে। ওদের পরিবারের লোকেরা জানাল, প্রাকৃতিক দুর্যোগে বাড়ি ও ভেঙে পড়েছে। কিন্তু ওরা যে সুস্থ আছে এটাই সবথেকে বড় কথা। বাকিটা সরকার দেখছে।’
কেন্দ্র আবাসের টাকা দিলে এরকম ঘটত না
এদিন আহত ব্যক্তিদের দেখার পর ভাজপার বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগ্রে দিয়েছেন। ‘প্রধানমন্ত্রী ভুটান যেতে পারেন, বিজেপির প্রাক্তণ সাংসদ নিশীথ,জন বারলা, রাজু বিস্ট, দেবশ্রী কোথায়! বিজেপির রাজ্য সভাপতি বালুরঘাটে ছিলেন জলপাইগুড়ি দুর্ঘটনার এলাকায় যাননি। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কাল রাতেই এসেছেন। আমরা রাজনীতি করতে আসিনি। আপনি যে দলকে ইচ্ছে ভোট দিতে পারেন কিন্তু আমার জনগণের পরিষেবা দিতে বদ্ধপরিকর। আবাসের টাকা পেলে এরকম ঘটনা ঘটত না’ জলপাইগুড়িতে গুরুতর জখম দুই শিশু ও নাবালককে হাসপাতালে দেখে জানালেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক। প্রসঙ্গত, রবিবারের ভয়ংকর দুর্যোগে সর্বহারা হয়ে পড়েছে জলপাইগুড়ি জেলা ময়নাগুড়ির অন্তর্গত বার্নিশ এলাকার বহু পরিবার। সোমবার শিলিগুড়িতে বার্নিশে গুরুতর যখন দুই শিশুকে হাসপাতালে দেখতে ছুটে আসেন অভিষেক। তিনি বলেন,’ আমি রাজনীতি করতে আসিনি। আপনি যে দলকে ইচ্ছে ভোট দিতে পারেন কিন্তু আমার জনগণের পরিষেবা দিতে বদ্ধপরিকর।

বাংলায় হারার পর ১০ পয়সার যদি শ্বেত পত্র প্রকাশ করতে পারেন আমি রাজনীতি ছেড়ে দেবো।আমি রাজনীতি করবো না। প্রশ্ন করুন বিরোধী দলনেতাকে প্রধানমন্ত্রীকে!বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার নিতে বলেছে টাকা বন্ধ করেছি।আমি ফোন করে দেব তাহলে টাকা আসবে। তিনি বলেন আজকে আবাস হলে এই বাচ্চাগুলোকে এভাবে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে থাকতে হতো না। তাদের মাথার ওপর এই আঘাত আসতো না।এই চোট লাগতো না।’ সোমবার দুপুরে বাগডোগড়া বিমান বন্দরে নেমে বলেন যেভাবে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। দুবছর বয়স এক শিশু ও নাবালক ১৪বছর তারা মাথায় চোট পেয়েছে। রবিবার রাতেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাতের বেলা বিমান নিয়ে চলে এসেছেন। যাদের বাড়িঘর ভেঙে গিয়েছে বা যারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে তারা কিছু সময় রিলিফ ক্যাম্পে থাকবে। সাড়ে বারোটা একটার মধ্যে যখন সবাই ঘুমিয়ে ছিল তখন অতন্দ্র প্রহরীর মতো মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। এই দৃষ্টান্ত ভারত বর্ষে আর কেউ স্থাপন করতে পারেনি। আমফান, কোভিড কালে মানুষের জন্য কাজ করার যে প্রতিজ্ঞা তিনি করেছেন তা সম্পন্ন করেছেন। রাজনীতি না করে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে দুমুঠো খাবার তুলে দিতে পারাকে আমি কর্তব্য মনে করি। তার বক্তব্য রাজনীতি হবে পরে হবে। বিরোধী দলনেতার কটাক্ষের বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমন শানিয়ে তিনি বলেন- ওনাদের কাছে কটাক্ষ ছাড়া আর কিছু করার নেই বোনেরা শুধু কটাক্ষই করেন। উনি রাতে আসতে পারলেন না কেন? প্রশ্ন তুলে অভিষেক বলেন,’বিরোধী দলনেতা রাজনীতি করছে। বিজেপির যে রাজ্য সভাপতি তিনি থাকেন বালুরঘাটে। বালুরঘাট থেকে জলপাইগুড়ি দূরত্ব ৩০০ কিলোমিটার। সাড়ে চার ঘন্টা থেকে ৫ ঘন্টা সময় লাগতো। ঘটনাটা ঘটেছে ৪.৩০-৫টা নাগাদ। চাইলে রাত আটটার মধ্যে পৌঁছে যাওয়া যেত। অথচ কালীঘাট থেকে জলপাইগুড়ি দূরত্ব ৬২০ কিলোমিটার মমতা ব্যানার্জী পৌঁছে যেতে পারলেন। দেশের প্রধানমন্ত্রী ভুটান যেতে পারেন। সেমিনারে গিয়ে ভাষণ দিতে পারেন। রাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বাংলায় পাঁচ বার এসে রাজনৈতিক সবাই এসে উপস্থিত হয়ে ভাষণ দিতে পারেন বিজেপির কর্মক্ষেত্রে উপস্থিত হতে পারেন। বিভিন্ন মন্দির ঘুরতে পারেন বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে বড় বড় ভাষণ ইন্টারভিউ দিয়ে কেন বিজেপিকে ভোট দেবে তা বলতে পারেন আর মানুষের পাশে এসে দাঁড়াতে পারেন না। বিজেপির উত্তরের সাংসদের এক হাত করে বলেন আমি এটা নিয়ে রাজনীতি করতে চাইনা। শিলিগুড়িতে বিজেপি প্রাক্তন সাংসদ ছিল, কোচবিহারে বিজেপির প্রাক্তণ সাংসদ ছিল, রায়গঞ্জে ছিল।বালুরঘাটে বিজেপির রাজ্য সভাপতি ছিল। তারা মানুষের পাশে কোনোদিনও থাকেনি। মানুষ সেটা দেখছে। কোভিডের সময় আমফানের সময়, ইয়াসের সময় বিভিন্ন এলাকা জুড়ে কারা ছিল। অভিষেকের খোলা মন্তব্য মানুষকে আমি বলব যদি তৃণমূল কংগ্রেসকে আপনাদের পছন্দ না হয় তৃণমূল কংগ্রেসকে ভোট না দিলে তৃণমূল কংগ্রেস আপনাদের পাশে থাকতে পরিসেবা দিতে বদ্ধপরিকর। তিনি বলেন যারা আমাদের ভোট দিয়েছে যারা রাত আমাদের ভোট দেননি রাজ্য সরকার তাদেরও পরিষেবা দিতে বদ্ধপরিকর। এটা বিজেপি সরকার নয় যে ভোট না পেলে টাকা বন্ধ করে দেব। আমাদের গ্যারান্টি মানুষের পাশে থেকে মানুষকে প্রাণের বাঁচিয়ে চিকিৎসা করিয়ে দ্রুত মুক্ত করে পরিবারের কাছে ফেরানো তৃণমূল কংগ্রেস ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে। মানুষকে বলবো ২০১৯-২০২১এ আলিপুরদুয়ার কোচবিহার জলপাইগুড়িতে আশানুরূপ ফল আমাদের হয়নি। তবু ছুটে এসেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি তড়িঘড়ি সিদ্ধান্ত নিয়ে যে সমস্ত দুর্গত মানুষ রয়েছেন তাদের সঠিক চিকিৎসা হচ্ছে কিনা দুর্গত মানুষেরা খাবার মিলছে কিনা সেসব খতিয়ে দেখতে ছুটে এসেছেন। নির্বাচন আচরণবিধি রয়েছে জন্য বিস্তারিত বলা যায় না। রাজ্য প্রশাসনের তরফে যা যা করণীয় সব করা হয়। তিনি শারীরিক অবস্থার কথা তুলে ধরে বলেন এদের মাথায় লেগেছে।

Scroll to Top