হাইলাইট
।।ভোটের জন্য বহুরূপী সাজলেও না জানেন রবীন্দ্রনাথ, না জানেন মহাত্মা গান্ধি।।কলকাতা হাইকোর্টের তৃণমূল বিরোধী অবস্থানকে সমর্থন প্রধানমন্ত্রীর।।চরম অটোক্র্যাট মোদি ৮০000 হাজার টাকার ব্যাঙের ছাতা খান।।সুপ্রিম কোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে চরম বিতর্কিত হিন্দু ধর্মের বিজ্ঞাপন।।এই কদর্য রিমেক ভাজপাকেই মানায়।।প্রধানমন্ত্রীর পদ ব্যবহার করে বিজেপির প্রচার করছেন মো।।ভাজপা প্রার্থী হিরণের ডক্টরেট ডিগ্রি জাল।।বিজেপির দিকে ভোট সুইং হবে না, মোদিকে চ্যালেঞ্জ, দম থাকলে আমার সঙ্গে মুখোমুখি বিতর্ক সভায় বসুন।।থেকে যাওনা গো।।মমতার তরুণ তুর্কি দেবাংশু নীল ঘোড়ায়।।সর্বত্র ভাজপা হারছে, না হলে বলে জগন্নাথদেবও মোদির ভক্ত।।বিজেপির একটা বুথে মদ খাওয়ার খরচ ৫০০০ টাকা।।৬ মাসের মধ্যে শুরু হবে ঘাটাল মাস্টারপ্ল্যানের কাজ।।পুরুলিয়ায় মোদির মঞ্চে ভারত সেবাশ্রমের সাধু।।১ মের বদলে ১ এপ্রিল থেকে ডিএ দেওয়ার সিদ্ধান্ত
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

ভোটের জন্য বহুরূপী সাজলেও না জানেন রবীন্দ্রনাথ, না জানেন মহাত্মা গান্ধি

ভোটের শেষ লগ্নে মোদিবাবুর মত, গান্ধি সিনেমা তোলা না হলে সারা বিশ্ব গান্ধির নামও জানত না ৩৬৫ দিন। ১০ অগাস্ট ২০০৭ : দক্ষিণ আফ্রিকার মানুষের

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

কলকাতা হাইকোর্টের তৃণমূল বিরোধী অবস্থানকে সমর্থন প্রধানমন্ত্রীর

রাজ্যসঙ্গীত গাইতে গিয়ে পদে পদে হোচট খেলেন মোদী ৩৬৫দিন। কলকাতা হাইকোর্টের তৃণমূল বিরোধী রায়কে সমর্থন প্রধানমন্ত্রীর। মঙ্গলবার সপ্তম দফার নির্বাচনের প্রচারে বাংলায় এসে তৃণমূল বিরোধী

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

চরম অটোক্র্যাট মোদি ৮০000 হাজার টাকার ব্যাঙের ছাতা খান

মোদির স্বৈরতান্ত্রিকত আচরণের বিরুদ্ধে মমতার গর্জন ৩৬৫ দিন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লাঞ্চের খরচ প্রায় চার লক্ষ টাকা। উনি যে ব্যাঙের ছাতা বা মাশরুম খান সেটি

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

সুপ্রিম কোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে চরম বিতর্কিত হিন্দু ধর্মের বিজ্ঞাপন

এবার ঘোমটার আড়ালে ভাজপার খ্যামটা নাচ,নিউজ মিডিয়া ছেড়ে সোশাল মিডিয়ায় বিপুল টাকা ঢেলে ৩৬৫ দিন। মোদী হ্যায় তো মুমকিন হ্যায়! তার জেরে জাতীয় নির্বাচন কমিশন

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

এই কদর্য রিমেক ভাজপাকেই মানায়

গৌতম ঘোষের ধিক্কার গৌতম ঘোষ। ৩৬৫ দিন। সত্যজিৎ রায়ের হীরক রাজার দেশে ছবিকে ,তার সংলাপকে, সেটকে এবং চরিত্রদের বিকৃত করে যে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন বিজেপি নির্মাণ

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

প্রধানমন্ত্রীর পদ ব্যবহার করে বিজেপির প্রচার করছেন মো

মমতার গর্জন, বিজ্ঞাপনেও লিখছে প্রধানমন্ত্রীর রোড শো ৩৬৫ দিন। আগামীকাল মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির রোড শো উত্তর কলকাতায়। নির্বাচন চলাকালীন প্রধানমন্ত্রীর ব্যাচ লাগিয়ে এই রোড

Read More »
Facebook
Twitter
LinkedIn
WhatsApp
Email
Print

জপমালা মাথায় ঠেকিয়ে আশীর্বাদ, হাত স্পর্শ করে আম্মাদের দোয়া দিদি তুমি ভালো থেকো

মালদার পদযাত্রায় অবিস্মরণীয় দৃশ্য, হিন্দু মুসলিম নির্বিশেষে স্বতস্ফুর্ত উচ্ছ্বাস

 

৩৬৫ দিন। ভারতীয় জনতা পার্টির আশ্রিত দুষ্কৃতীরা যখন ক্রমাগত বাংলায় ভেদাভেদের রাজনীতি নিয়ে চরম আকার ধারণ করছে, লোকসভা নির্বাচনের আগে ততই বাংলার মুখ্যমন্ত্রী ভাজপার প্ররোচনায় পা না দেওয়ার আহবান দিচ্ছেন। বাংলায় হিন্দু মুসলমান সহ সকল ধর্মের মানুষ একসঙ্গে মমতার রোড শো এ অংশগ্রহণ করে তাকে আশীর্বাদ করলেন।

আমাদের স্লোগান দিল্লিতে পরিবর্তন চাই

‘গত বিধানসভা নির্বাচনে মালদা জেলা আম এবং আমসত্ত্ব দুটোই আপনারা আমাদের দিয়েছেন। আমরা কোনদিন লোকসভা নির্বাচনে আসন পায়নি এখানে। এবার পাল্টাবেন তো? চলুন এবার পরিবর্তন করি। আমাদের এবার একটা স্লোগান, দিল্লিতে পরিবর্তন চাই। আমার পেছনে লাগতে গিয়ে ওদের সভাপতির গলা দিয়ে বেরিয়ে গেছে জয় বাংলা। বাংলা থেকে বিজেপিকে উপড়ে দিন। আগামী দিন আসছে, সবাই হাসছে। বিজেপি দেশ বিক্রি করছে জাতি বিক্রি করছে ধর্ম বিক্রি করছে। সব এজেন্সিকে কিনে নিয়েছে। বিচারের শেষ জায়গাটাকেও দখল করতে চাইছে। এই বাংলার সঙ্গে বিজেপির ম্যাচ করেনা। বিজেপির ওয়েবেলেন্থ আলাদা, বাংলার ওয়েবেলেন্থ আলাদা। বাংলায় আমরা কাউকে বঞ্চিত করিনি। দিল্লিকে পাল্টান। গোটা দেশ এখন গণতন্ত্রের জেলে পরিণত হয়েছে। মোদি বাবু দশ বছরে দেশকে বিক্রি করে দিয়েছেন। সুভাষচন্দ্র বোসের জন্মদিন আজও জাতীয় ছুটি ঘোষণা করা হয়নি’ উত্তর মালদার চাচোল ও তাতীপাড়া থেকে এভাবেই ভারতীয় জনতা পার্টির বিরুদ্ধে গর্জে উঠলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা। প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থনে জনসভা করার পর মালদা দক্ষিণে এদিন রোড শো করেন জননেত্রী মমতা। ইংরেজবাজারের সুকান্ত মোড় থেকে রবীন্দ্রমূর্তি পর্যন্ত মমতার রোড শো এ বিপুল জনস্রোত লক্ষ্য করা যায়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নাক খত দিন

এদিন জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘গতকাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত দাদা মহাশয় বলেছেন, বাংলা নাকি ২’লক্ষ ২৯ হাজার কোটি টাকা ইউটিলাইজেশন সার্টিফিকেট দেয়নি। আমি সিপিএমের দায়িত্ব নেব না। কিন্তু আমি অমিত শাহ’কে চ্যালেঞ্জ করে বলছি আমাদের ১২ বছরে আনইউটিলাইজেশন সার্টিফিকেট কিছু পড়ে নেই। হয় ক্ষমা চান, নয় নাখ ক্ষত দিয়ে বলুন আর বলবো না। সব দিয়ে দেওয়া হয়েছে। তুমি যে মিথ্যে কথাটা বলে গেলে তার জন্য কত দাম দেবে? এখন ক্যাগ রিপোর্ট নিয়ে বলছি, ৪ এর ১ নম্বর ধারায় আপনাদের ৩২ টা ডিপার্টমেন্ট ৫২ হাজার কোটি টাকার এখনো ইউটিলাইজেশন সার্টিফিকেট দেয়নি। আগে ইট মারতে গিয়ে নিজের মুখটা আয়নায় দেখুন। আপনারা একটা ভোটও সিপিএম এবং কংগ্রেসকে দেবেন না। ইন্ডিয়া জোট আমি সৃষ্টি করেছি। আমরা ইন্ডিয়া জোটকে নিয়ে মোদিকে তাড়াবোই।’

মাছের ঝোল ভাত সহজ রান্না

মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, ‘মাছের ঝোল ভাত হচ্ছে সহজ রান্না। আর ভেজ করতে গেলে একটা ডাল করো, একটা তরকারি কর, একটা ভাজা করো একটু ঘি নাও, একটু পনির নাও কত রকম আইটেম। সবাই কি পারে। রাজস্থানের মাছ-মাংসের দোকান বন্ধ। উত্তরপ্রদেশেও বন্ধ, ক্ষমতায় এসে মধ্যপ্রদেশেও বন্ধ করে দিয়েছে।’

উনি কি সত্যিই কংগ্রেসি

এদিন নাম না করে অধীর চৌধুরী প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘লোকসভায় বিরোধী দলনেতাকে দেখেছেন। মোদি তোকে বুকে আগলে রাখেন। উনি কি সত্যিই কংগ্রেসি, নাকি বিজেপির বন্ধু? বাংলায় বিজেপির দুটো চোখ। একটা সিপিএম আরেকটা কংগ্রেস। লোকসভায় কখনো কংগ্রেসকে বাংলার জন্য সরব হতে দেখেছেন। তাহলে কেন ওদের জেতাবেন।’

নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষহীনতা

মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, ‘মালদায় বিজেপির যে প্রার্থী তার স্বামী বিএসএফে কাজ করতেন শুনেছি। এখন কি রিটায়ার করে গেছে? আগেরবারও তো ছিল ক্ষমতা আমি জানতাম। তার বউ প্রার্থী হলে তাকে ইলেকশন কমিশন সরায় না, আর আমাদের এমএলএ লাভলী বর এসপি হলে তাকে সরিয়ে দিতে হয়। এইতো নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা। ওদের বড় গদ্দার নেতাকে, ওরা বুকের ভেতরে আগলে রেখে দিয়েছে। কিন্তু যতই আগলে রাখুক, কমিশনের রিপোর্টে ওদের বুক দুরু দুরু করছে।’

এনআরসি করতে দেব না

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বাংলায় এনআরসি ক্যা ইউনিফর্ম সিভিল কোর্ট করতে দেব না। কেউ কেউ দুষ্টুমি করে। কেউ কেউ ৫০ বছর আগের কাস্ট সার্টিফিকেট নিয়ে আসতে বলে। আমরা কাস্ট সার্টিফিকেট দেওয়ার সরলীকরণ করেছি। তোমাদের মন্ত্রী আছে সে ক্যা এপ্লাই করেনি। আমরা বাংলায় এনআরসি করতে দেব না, আমরা ক্যা করতে দেব না, আমরা ইউনিভার্সাল সিভিল কোর্ট করতে দেবো না।’

গঙ্গা পদ্মা ভাঙ্গন রোধ

গঙ্গা পদ্মা ভাঙ্গন রোধে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘২০৪ কোটি টাকা খরচ করে গঙ্গা পদ্মা ভাঙ্গন রোধ করেছি আমরা। কেন্দ্র এক পয়সাও দেয়নি।’

মুখ্যমন্ত্রী রোড শো

মুখ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী পদযাত্রায় মালদার রাজপথ যেন জনজোয়ারে পরিণত হল। পদযাত্রায় লক্ষ্মীর ভান্ডারের ফেস্টুন হাতে নিয়ে শতাধিক মহিলারা মূলত মিছিলের সামনের সারিতে ছিলেন। মুখ্যমন্ত্রীর পদে যাত্রা পিছনে ছিল আদিবাসীদের নৃত্য। সেদিন বিকেল পাঁচটা নাগাদ মালদা শহরের সুকান্ত মোড় এলাকার রাজপথ থেকে শুরু হয় মুখ্যমন্ত্রীর পদযাত্রা। ফুল ছিটিয়ে উলুধ্বনি দিয়ে শঙ্খ বাজিয়ে মমতার পথযাত্রাকে অভিনন্দন জানান মালদা শহরের বাসিন্দারা। মুখ্যমন্ত্রী ও প্রতি নমস্কার জানান সকলকে।

Scroll to Top