হাইলাইট
।।ভোটের জন্য বহুরূপী সাজলেও না জানেন রবীন্দ্রনাথ, না জানেন মহাত্মা গান্ধি।।কলকাতা হাইকোর্টের তৃণমূল বিরোধী অবস্থানকে সমর্থন প্রধানমন্ত্রীর।।চরম অটোক্র্যাট মোদি ৮০000 হাজার টাকার ব্যাঙের ছাতা খান।।সুপ্রিম কোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে চরম বিতর্কিত হিন্দু ধর্মের বিজ্ঞাপন।।এই কদর্য রিমেক ভাজপাকেই মানায়।।প্রধানমন্ত্রীর পদ ব্যবহার করে বিজেপির প্রচার করছেন মো।।ভাজপা প্রার্থী হিরণের ডক্টরেট ডিগ্রি জাল।।বিজেপির দিকে ভোট সুইং হবে না, মোদিকে চ্যালেঞ্জ, দম থাকলে আমার সঙ্গে মুখোমুখি বিতর্ক সভায় বসুন।।থেকে যাওনা গো।।মমতার তরুণ তুর্কি দেবাংশু নীল ঘোড়ায়।।সর্বত্র ভাজপা হারছে, না হলে বলে জগন্নাথদেবও মোদির ভক্ত।।বিজেপির একটা বুথে মদ খাওয়ার খরচ ৫০০০ টাকা।।৬ মাসের মধ্যে শুরু হবে ঘাটাল মাস্টারপ্ল্যানের কাজ।।পুরুলিয়ায় মোদির মঞ্চে ভারত সেবাশ্রমের সাধু।।১ মের বদলে ১ এপ্রিল থেকে ডিএ দেওয়ার সিদ্ধান্ত
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

ভোটের জন্য বহুরূপী সাজলেও না জানেন রবীন্দ্রনাথ, না জানেন মহাত্মা গান্ধি

ভোটের শেষ লগ্নে মোদিবাবুর মত, গান্ধি সিনেমা তোলা না হলে সারা বিশ্ব গান্ধির নামও জানত না ৩৬৫ দিন। ১০ অগাস্ট ২০০৭ : দক্ষিণ আফ্রিকার মানুষের

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

কলকাতা হাইকোর্টের তৃণমূল বিরোধী অবস্থানকে সমর্থন প্রধানমন্ত্রীর

রাজ্যসঙ্গীত গাইতে গিয়ে পদে পদে হোচট খেলেন মোদী ৩৬৫দিন। কলকাতা হাইকোর্টের তৃণমূল বিরোধী রায়কে সমর্থন প্রধানমন্ত্রীর। মঙ্গলবার সপ্তম দফার নির্বাচনের প্রচারে বাংলায় এসে তৃণমূল বিরোধী

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

চরম অটোক্র্যাট মোদি ৮০000 হাজার টাকার ব্যাঙের ছাতা খান

মোদির স্বৈরতান্ত্রিকত আচরণের বিরুদ্ধে মমতার গর্জন ৩৬৫ দিন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লাঞ্চের খরচ প্রায় চার লক্ষ টাকা। উনি যে ব্যাঙের ছাতা বা মাশরুম খান সেটি

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

সুপ্রিম কোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে চরম বিতর্কিত হিন্দু ধর্মের বিজ্ঞাপন

এবার ঘোমটার আড়ালে ভাজপার খ্যামটা নাচ,নিউজ মিডিয়া ছেড়ে সোশাল মিডিয়ায় বিপুল টাকা ঢেলে ৩৬৫ দিন। মোদী হ্যায় তো মুমকিন হ্যায়! তার জেরে জাতীয় নির্বাচন কমিশন

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

এই কদর্য রিমেক ভাজপাকেই মানায়

গৌতম ঘোষের ধিক্কার গৌতম ঘোষ। ৩৬৫ দিন। সত্যজিৎ রায়ের হীরক রাজার দেশে ছবিকে ,তার সংলাপকে, সেটকে এবং চরিত্রদের বিকৃত করে যে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন বিজেপি নির্মাণ

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

প্রধানমন্ত্রীর পদ ব্যবহার করে বিজেপির প্রচার করছেন মো

মমতার গর্জন, বিজ্ঞাপনেও লিখছে প্রধানমন্ত্রীর রোড শো ৩৬৫ দিন। আগামীকাল মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির রোড শো উত্তর কলকাতায়। নির্বাচন চলাকালীন প্রধানমন্ত্রীর ব্যাচ লাগিয়ে এই রোড

Read More »
Facebook
Twitter
LinkedIn
WhatsApp
Email
Print

দিল্লিতে কী চলছে ফাঁস করেছিলমহুয়াকে নিয়ে ওদের খুব জ্বালা

৩৬৫ দিন। বহরমপুরের কংগ্রেস প্রার্থী অধীর চৌধুরী হয় কংগ্রেস নয়তো দুর্বলতম জায়গায় ভারতীয় জনতা পার্টিকে ভোট দেওয়ার কথা বলছেন। নাম না করে, অধীর চৌধুরীর এই নীতি আদর্শহীন রাজনীতির তীব্র সমালোচনা করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা। বৃহস্পতিবার কৃষ্ণনগরের তেহট্টে মহুয়া মৈত্রের সমর্থনে সভা করেন মুখ্যমন্ত্রী যেখানে মহুয়ার লড়াকু মানসিকতার প্রশংসা করেন মমতা। এরপর বর্ধমান পূর্ব লোকসভা কেন্দ্রে ডক্টর শর্মিলা সরকারের সমর্থনে জনসভা করেন বাংলার মুখ ্যমন্ত্রী। আইএএস, আইপিএসদের ফোন করে বিজেপিকে ভোট দিতে বলা হচ্ছে বলেও এদিন অভিযোগ করেন মুখ্যমন্ত্রী।

নীতি ও আদর্শহীন লোকসভার বিরোধী দলনেতা

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আজকে যারা কমিশনে বসে আছে তারা বিজেপির লোক সাথে কংগ্রেসের বিরোধী দলনেতা। যিনি বলছেন হয় বিজেপিকে ভোট দিন নয় কংগ্রেসকে ভোট দিন। বুঝুন, না আছে নীতি না আছে আদর্শ। দুজন নেতা মিটিং করে গেলেন বহরমপুরে। একবারও সেই নেতার নাম মনে আনলেন না। দেশটাকে তো বিক্রি করে দিয়েছে এদের মত কয়েকটা স্বার্থপর লোক।’

মহুয়াকে নিয়ে বিজেপির খুব জ্বালা

মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, ‘মহুয়া মৈত্র কে আপনারা নির্বাচিত করলেন। বিজেপির কোন অধিকার নেই ওকে পার্লামেন্ট থেকে বহিষ্কার করে দেওয়ার। আমরাও পারি আপনার যত এম এল এ আছে তাদের সবাইকে বহিষ্কার করে দেওয়ার। এই ক্ষমতা দেখাচ্ছেন। একটা লোকসভা নির্বাচনে জেতা মানে গায়ে জোর নয়। একদিনে ১৪৭ জন এমপিকে আপনারা ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করে দিয়েছেন। কাল আবার মিথ্যে কথা বলতে আসছে মহুয়ার এখানে। তার কারণ মহুয়াকে নিয়ে ওদের খুব জ্বালা। মহুয়া যে ওদের চমকায় না। তৃণমূল টা লড়াই করে বাঘের বাচ্চার মত। ও বলে দিয়েছিলে দেশে কি চলছে, কি রাগ। কার সঙ্গে কার বন্ধুত্ব কেঁচো খুঁড়তে গেলে সাপ বেরিয়ে যাবে। তাহলে মহুয়াকে ভোটটা হবে? জোড়া ফুলে ভোটটা হবে? প্রধানমন্ত্রীর ধমকানি শুনে ভয় পাবেন না তো? ওকে পার্লামেন্ট থেকে তাড়িয়ে দিলেও মানুষের মন থেকে তাড়িয়ে দিতে পারেনি। ওকে আবার গ্রহণ করবেন।’

আইএএস, আইপিএসদের ফোন ওরে বিজেপিকে ভোট দিতে বলা হচ্ছে এদিন মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, ‘আমি এটাও জানি আইএএস, আইপিএস অফিসারদের যার যেখানে বাড়ি, সেখানকার মুখ্যমন্ত্রীদের দিয়ে ফোন করানো হচ্ছে। ফোন করে বলা হচ্ছে বিজেপির পক্ষে কাজটা করো। কোন লেভেলে গিয়ে আপনারা কাজ করছেন। মানুষের লেবেল নয়।’ মোদি মানুষের মাথার ওপর বসে ডান্ডা চালাবে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘শুধু ওয়ান নেশন ওয়ান লিডার, একা নরেন্দ্র মোদী মানুষের মাথার ওপর বসে ডান্ডা চালাবে। চোর ডাকাতগুলো চুরি করছে আর ভাজ পাও ওয়াশিং মেশিনে চলে যাচ্ছে। দেশটাকে বাঁচান আর মোদিকে হাঁটান। ভোটের দিন ভোেট করতে দেয় না। ভোটের দিন যা ভোট পড়ে পাঁচ দিন বাদে নির্বাচন কমিশন বলে না এটা নয় ভোটের পরিসংখ্যান পাল্টে গেছে।’

এনআরসি, ক্যা, ইউনিফর্ম সিভিল কোর্ট বাংলায় করতে দেব না

এদিন মুখ্যমন্ত্রী মতুয়া সম্প্রদায়কে আশ্বস্ত করে বলেন, ‘মতুয়া মা বোনেরা জেনে রাখুন ইউনিফর্ম সিভিল কোর্ট করছে। আমরা ক্যা, এনআরসি ইউনিফর্ম সিভিল কোর্ট বাংলায় করতে দেব না। নির্বাচনের দশ বছর আগে থেকে আপনারা মতুয়াদের মিথ্যে কথা বলছেন, বলছেন তোমাদের নাগরিকত্ব দেবো। আপনারা তো এমনিতেই নাগরিক, আপনাদের নাগরিকত্ব কারবার অধিকার কারও নেই। আজকে যারা ভয় পাচ্ছেন আমরা নাগরিক থাকতে পারবো কিনা, আমরা কি মরে গেছি নাকি। আপনাদের গায়ে কেউ হাত দিয়ে দেখুক তো? বুঝে নেবো দেখে নেব। ক্যা নিয়ে খেলা হবে না বাংলার সংস্কৃতির সঙ্গে খেলা হবে। কোনটা খে লবেন ঠিক করুন। অনেক হয়েছে আর না এবার দিল্লিতে পরিবর্তন চাই। আমরা বাংলা থেকে যত বেশি আসন নিয়ে যাব তত বেশি জোর থাকবে এটা মাথায় রেখে দেবেন।’

মাধ্যমিকে কৃতকার্যদের অভিনন্দন

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানাই। যারা ভাল রেজাল্ট করেছে তাদের সকলকে আমার অনেক অনেক অভিনন্দন। হয়তো কিছু পরীক্ষার্থী পাস করতে পারেননি সেটা সব পরীক্ষাতেই হয়। তার জন্য দুঃখ পাবেন না। আবার পরীক্ষা দেবেন আবার পাশ করে যাবেন। মাধ্যমিক পরীক্ষার পরেই উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার রেজাল্ট বেরোবে। মাদ্রাসা হাই মাদ্রাসা পরীক্ষার রেজাল্ট বেরোবে।’ বড়মার দায়িত্ব আমার ওপর ছিল

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বড়মা যতদিন বেঁচে ছিলেন তার চিকিৎসার দায়িত্ব আমি নিয়েছিলাম। তিনি অসুস্থ হলেই তাকে বেলভিউতে এনে চিকিৎসা করতাম। যখন বড়মাকে কেউ চিনতই না আমি বারবার ছুটে যেতাম।’

বনগাঁর প্রার্থী ক্যা করেন নি

মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, ‘আপনার বনগাঁয় যিনি ক্যান্ডিডেট তিনি ক্যা এর জন্য এখনো এপ্লিকেশন করেননি। চালু আছে জানে, করলেই বিদেশি হয়ে যাবে।’

প্রধানমন্ত্রী খালি মিথ্যে বলছেন

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘একটা সাধারন মানুষ যদি মিথ্যা কথা বলে তাকে লজ্জায় কান ধরে উঠবস করতে হয়। আর দেশের প্রধানমন্ত্রী যদি মিথ্যে কথা বলে তাকে ধান-দুব্বো দিয়ে পূজা করতে হয়।’ আমার লু লেগে গেছে

মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, ‘আমি এক মাস ধরে প্রোগ্রাম করছি। আমার খুব লু লেগে গেছে। গলাটাও ভেঙে গেছে।

মোদি বাবু গ্রাম পুড়ছে খবর রাখেন?

মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, ‘মোদি বাবু চারিদিকে গ্রামে গঞ্জে জ্বলছে। খবর রাখে ন? আর আপনি আপনার বিজেপি সিট গুলোকে যাতে রক্ষা করতে পারেন তাই তিনটে নিজের মতো লোককে নির্বাচন কমিশন বানিয়ে দিয়েছেন। বাংলার সঙ্গে এই রকম ব্যবহার করা হচ্ছে বলে নির্বাচন কমিশনের একজন চলে গিয়েছিলেন আমি তাকে স্যালুট জানাই।’

শর্মিলা আপনাদের পাশেই থাকবে

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘শর্মিলা ডাক্তারি করত ও রিজাইন করে তবে এসেছে। ও জিতে আবার চলে যাবে, যারা এ কথা বলছে তারা বাজে কথা বলছে। শর্মিলা খুব ভালো মেয়ে। খুব ভদ্রঘরের মেয়ে ও ভালো কাজ করবে বলে এসেছে।। আপনাদের পাশে থাকবে চলে যাবে না।’

মধুবিধূ বাবুদের বাংলার উপর খুব রাগ

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলার উপর মোদি বাবুর খুব রাগ। কেরলে তামিলনাড়ুতে নির্বাচন হয়ে গেল। বিজেপি বাংলাকে সহ্য করতে পারে না। বাংলাকে দেখলে ওদের গালগুলো যায় ফুলে, আর লুচির মত জলে। বিজেপি চেয়েছিল আমরা যাতে মানুষকে ফুড কর্পোরেশনের পচা ভাঙা চাল সেইসব চাল গুলো দিই। আমরা ঠিক করেছিলাম না, রেশনে যে চালটা দিই সেটা আমরা আমাদের চাষীর ঘরের চাল দেব। মধুবিধু বাবুদের একটাই কথা ওনারা মিথ্যে কথা কমাচ্ছেন না। আগামী দিনে সংবিধান ভাঙতে দেব না এটা আমাদের শপথ হোক।’

Scroll to Top