হাইলাইট
।।উফ কী গরম
Part-164
।।বিধানসভার উপনির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমা দিলেন তৃণমূল প্রার্থী মুকুটমনি অধিকারী।।উফ কী গরম
Part-163
।।ফ্লাইট থেকে নেমেই আর শুনতে পাচ্ছেন না অলকা ইয়াগনিক,বিরল রোগের শিকার গায়িকা।।মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশে মেয়র ও পরিবহণ মন্ত্রীর তত্ত্বাবধানে, কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসের দুর্ঘটনায় কবলে পড়া যাত্রীদের রাত জেগে বাড়ি ফেরাল রাজ্য সরকার।।ভয়াবহ আগুনে পুড়ে ছাই হলং বনবাংলো।।তাপমাত্রা ৫১ ডিগ্রি ছাড়িয়েছে, হজে গিয়ে হিটস্ট্রোকে মৃত 500।।জলস্তর বৃদ্ধি তোর্সা নদীতে। এলাকা পরিদর্শনে পৌর প্রধান রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। কোচবিহার।।।।উফ কী গরম
Part 162
।।শিয়ালদহগামী কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস দুর্ঘটনা, মালগাড়ির সঙ্গে ধাক্কায় উল্টে গেলে 2 কামরা।।উপনির্বাচনের তিন প্রার্থীকে নিয়ে দলীয় বৈঠক।।অভিষেকের সিম ক্লোন করে ফোন।।ডায়মন্ড হারবারে বিপুল জয়, শুভেচ্ছা বিনিময়ে অভিষেক।।তিন কোটি টাকার বেআইনি সোনা সহ গ্রেফতার দুই।।তৃণমূল শিবিরে লাগাতার যোগদান কাল ঘাম ছোটাচ্ছে বিজেপির
৩৬৫ দিন Exclusive
khabar365din

উফ কী গরম
Part-164

উফ কী গরম ! HOT BIKINI ডেমি রোজ ৩৬৫ দিন। সান্তরিনি আইল্যান্ড তখন আরও ঝকঝকে।ঝলমলে রোদের সঙ্গে দ্বীপ যেনও আরও সাদা হয়েগেছে।এর মাঝেই পিঙ্ক বিকিনি

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

বিধানসভার উপনির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমা দিলেন তৃণমূল প্রার্থী মুকুটমনি অধিকারী

খবর ৩৬৫ নদিয়া:রানাঘাট দক্ষিণ বিধানসভা উপ নির্বাচনে বৃহস্পতিবার রানাঘাট মহকুমা শাসকের দপ্তরে গিয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন তৃণমূল প্রার্থী ডাঃ মুকুটমনি অধিকারী। বৃহস্পতিবার সকালে রানাঘাট

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

উফ কী গরম
Part-163

উফ কী গরম HOT BIKINI ইরিনা আলেখিনা   ৩৬৫ দিন। কম বয়সেই উচ্চতার শিখরে।এক একটা সিঁড়ি পার করে এখন তিনি অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ।তিনি ইরিনা আলেখিনা।রাশিয়ার

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

ফ্লাইট থেকে নেমেই আর শুনতে পাচ্ছেন না অলকা ইয়াগনিক,বিরল রোগের শিকার গায়িকা

ক্রমশ শ্রবণশক্তি হারাচ্ছেন গায়িকা ৩৬৫ দিন।৯০ দশকে হার্টথ্রব অলকা ইয়াগনিক বিরল রোগের শিকার।বড় ঘটনা ঘটেছে তাঁর জীবনে।শ্রবণশক্তি হারিয়েছেন এই গায়িকা।বিরল স্নায়ুরোগে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি।নিজেই ইনস্টাগ্রামে

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশে মেয়র ও পরিবহণ মন্ত্রীর তত্ত্বাবধানে, কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসের দুর্ঘটনায় কবলে পড়া যাত্রীদের রাত জেগে বাড়ি ফেরাল রাজ্য সরকার

৩৬৫ দিন। রেল কর্তৃপক্ষের চূড়ান্ত গাফিলতির জেরে দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস। নিজেদের ওপর থেকে দোষ ঝেড়ে ফেলতে, তড়িঘড়ি মৃত চালকের ঘাড়ে দোষ চাপিয়েছে রেল

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

ভয়াবহ আগুনে পুড়ে ছাই হলং বনবাংলো

৩৬৫ দিন। বিধ্বংসী আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেল জলদাপাড়ার ঐতিহ্যবাহী সরকারি বনবাংলো হলং। রাত ৯টা নাগাদ হলং বাংলোতে কর্মীরা আগুন দেখতে পান। বর্ষায় জঙ্গল পর্যটকদের

Read More »
Facebook
Twitter
LinkedIn
WhatsApp
Email
Print

এই কদর্য রিমেক ভাজপাকেই মানায়

গৌতম ঘোষের ধিক্কার

গৌতম ঘোষ। ৩৬৫ দিন। সত্যজিৎ রায়ের হীরক রাজার দেশে ছবিকে ,তার সংলাপকে, সেটকে এবং চরিত্রদের বিকৃত করে যে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন বিজেপি নির্মাণ করেছে ,এবং বুক ফুলিয়ে এই বাংলার টিভি চ্যানেলে তাকে সম্প্রচার করছে,তার তীব্র প্রতিবাদ জানাই। এই মারাত্নক দুষ্কর্মের সঠিক সময়ে প্রতিবাদ জানানোর জন্য খবর ৩৬৫ দিন সংবাদপত্রের সম্পাদককে আমার মত আরও চলচ্চিত্রপ্রেমী,এবং বাঙালি ও বাংলাভাষী মানুষের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই। যখন রাজ্যের ও দেশের প্রায় সবকটি সংবাদমাধ্যম, টেলিভিশন,অনলাইন এবং সংবাদপত্র প্রাকৃতিক দূর্যোগ নিয়ে এক ঘটনার ঘূর্ণিঝড় তৈরি করেছে,টেলিভিশন প্যানেলে দুর্যোগ বিষয়ক গবেষকদের নিয়ে বাঙালির ডয়িংরুম গরম করছে। তখন বাংলা ,বাঙালির সাংস্কৃতিক কাঠামোয় গোপনে দুর্যোগ এসে পড়েছে তা সবার চোখ এড়িয়ে গেলেও এই সংবাদপত্রের নজর এড়ায়নি। সত্যজিৎ রায় কেবল বাংলার নয় সারা দেশের একবিংশ শতকের মুখ, আন্তর্জাতিক ফেস ভ্যালু, গর্ব। তাকে বিকৃত করার সাহস ওরা অর্জন করেছে, হয়ত এর পরেই গীতাঞ্জলি বিকৃত হবে, নজরুল গীতি বিকৃত হবে, বিদ্যাসাগর বিকৃত হবেন। আর লজ্জার এটাই বাঙালি হয়েও আমরা এটা নিয়ে কোনোও প্রতিবাদ করছি না। সাড়ে নয় কোটি বাঙালি ,বুদ্ধিজীবী, পণ্ডিত, সিনে মাস্টাররা বাড়িতে বসে বিজ্ঞাপন দেখছেন,অথচ কারুর মনে প্রশ্ন জাগল না! বাংলা আর বাঙালির সঙ্গে যা খুশি হবে আমরা কি মেনে নেব?

অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ এবং জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পুরস্কার পাওয়া এই ছবি কেবল একটা ল্যান্ডমার্ক চলচ্চিত্রই নয়, এটি একটি গুরুত্বপুর্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক থিওরি। আমরা পরিচালকরা এই ছবি বারংবার দেখি এবং শিখি, হাউ টু মেইক আ কমপ্লিট সোসিও পলিটিকাল মুভি উইথ ফুল অফ স্যাটায়ার এন্ড জয়। এক তরুণ ইতালীয় পরিচালক বলছেন, The more they study, the more they know, the lesser they follow orders। this is a eternity rules for all dictators.

এই ছবিকে বিকৃত করে, ওই সব কালজয়ী সংলাপ বিকৃত করার দুসাহস কোথা থেকে পায় এরা? ইন্টারন্যাশনাল ইন্টেলেকচুয়াল প্রপার্টি অ্যাক্ট অনুযায়ী এটা মারাত্নক অপরাধ। রায় পরিবারের সৌজন্যতা সুযোগ নিয়ে এই নোংরামি মেনে নেওয়া যায় না। কে অত বড় চিত্রনাট্যকার হয়ে উঠল,ওই সংলাপ বিকৃত করে? কে কতবড় অভিনেতা হয়ে উঠল,উৎপলবাবুর চরিত্র নকল করে? গলার স্বর নকলকে অভিনয় বলে না। ওটা মিমিক্রি করা বলে। গ্রাম বাংলার স্টেজে অমন অনেক দেখা যায়। আইনত এই চিত্রনাট্যের কপিরাইট রায় পরিবারের। এর সঙ্গীত রচনা,নোটেশন রায় পরিবারের সম্পত্তি। কেবল ছবিটি রাজ্যে সরকারের। আমি নিশ্চিত এর জন্য কোনোও অনুমতি নেওয়া হয়নি। সামান্য ইউটিউবে কিনা বিজ্ঞাপনের জিঙ্গেলে কোনও গান বা ছবির দৃশ্য ব্যবহার করতে গেলেও অনুমতি মাস্ট। আমরা ছবি বা তথ্যচিত্র বানানোর সময় কোনও পেইন্টিং,ভাস্কর্য এমনকি স্টিল ফটোগ্রাফ রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করলেও অনুমতি নিয়ে থাকি। সম্পূর্ন আইন বিরুদ্ধ কাজ করেছেন যারা এটি বানিয়েছেন।

হীরক রাজার দেশে এমন একটা ছবি যা শুধু আমাদের মত পরিচালকদের নয়,গোটা বিশ্বের পরিচালকদের কাছে অসম্ভব গুরুত্বপুর্ন। সামান্য পুঁজি নিয়ে,অতি সাধারণ পরিকাঠামো নিয়ে সত্যজিৎ রায় যে ছবিটি নির্মাণ করেছেন ৪৩ বছর আগে,তার বিষয় ,গুরুত্ব চিরকালীন। তীব্র রাজনৈতিক এবং মানব বিল্পবের ছবি হীরক রাজার দেশে। স্বৈরাচারী শাসক এবং তাঁর রাষ্ট্রীয় যন্ত্রের বিরুদ্ধে সর্ব স্তরের সামাজিক ও অর্থনৈতিক কাঠামোর মানুষের সুতীব্র বিপ্লবের প্রতীক এই ছবি। আজন্ম কাল ধরে স্বৈরাচারের চিত্রটা একই। সময়ের সঙ্গে কেবল প্রসেস বদলে যায়,কিন্তু থিওরি একই থাকে,মগজধোলাই। জুলিয়াস সিজার, স্ট্যালিন ,মুসোলিনি কিংবা হিটলারের যে কেউ হতে পারেন এই ছবির হীরক রাজা।

Scroll to Top