হাইলাইট
।।উফ কী গরম ! Part-189।।রাজ্য পুলিশের ডিজি পদে ফিরলেন রাজীব কুমার।।টালা ঝিলপার্ক, রাসেল স্ট্রিট, পাটুলিতে হচ্ছে স্ট্রিট ফুড হাব।।মানবিক মুখ্যমন্ত্রী : প্রাক্তন কারামন্ত্রীর চিকিৎসার দায়িত্ব গ্রহণ।।নামী রেস্তোরাঁর বিরিয়ানিতে বিষ রং পুরসভার জরিমানা ৩ লক্ষ টাকা।।উফ কী গরম ! Part-188।।শপথের জন্য রাজ্যপালকে আর্জি,রাজ্যপাল টালবাহানা করলে শপথ পাঠ করাবেন অধ্যক্ষ।।মিথ্যা ন্যারেটিভ ছড়িয়ে বাংলায় দাঙ্গার চক্রান্ত, অসমের গরু পাচারের ভিডিও হুগলির ঘটনা বলে প্রচার।।আকাশ দখল ঠেকাতে কেএমসি’র নয়া নীতি, তৈরি হবে নো হোর্ডিং জোন।।ত্রাতা মার্তিনেজ, কলম্বিয়াকে হারিয়ে কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা।।গাছেদের সুরক্ষায় কলকাতায় চালু হবে ট্রি অ্যাম্বুলেন্স।।শতবর্ষে বাদল সরকার,শহরে চলছে বাদল থিয়েটার মেলা।।আততায়ী কে? ২০ বছরের মেধাবী ছাত্র টমাস ম্যাথিউ ক্রুকস।।উফ কী গরম ! Part-187।।মার্কিন বন্দুকবাজের হাতে খুন ৪ প্রেসিডেন্ট, ৮ অল্পের জন্য রক্ষা
বিবি
Avinash

উফ কী গরম ! Part-189

উফ কী গরম ! HOT BIKINI নিকোল মিনেতি ৩৬৫ দিন। কম বয়সেই উচ্চতার শিখরে উঠেছিলেন।এক একটা সিঁড়ি পার করে এখন তিনি অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ।টেলিভিশন থেকে

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

রাজ্য পুলিশের ডিজি পদে ফিরলেন রাজীব কুমার

৩৬৫ দিন। ফিরে এলেন রাজীব কুমার। ফিরলেন রাজ্য পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল পদে। লোকসভা নির্বাচনের পরে রাজ্য পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল রাজীব কুমারকে সরিয়ে দিয়েছিল জাতীয় নির্বাচন

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

টালা ঝিলপার্ক, রাসেল স্ট্রিট, পাটুলিতে হচ্ছে স্ট্রিট ফুড হাব

৩৬৫ দিন। কলকাতা শহরের স্ট্রিট ফুডের সংস্কৃতি দীর্ঘদিনের। ডেকারস লেন থেকে শুরু করে টেরিটি বাজারের স্ট্রিট ফুড বিশ্বের যে কোন দেশের স্ট্রিট ফুডের সঙ্গে পাল্লা

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

মানবিক মুখ্যমন্ত্রী : প্রাক্তন কারামন্ত্রীর চিকিৎসার দায়িত্ব গ্রহণ

৩৬৫দিন। মানবিক মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের প্রাক্তন কারামন্ত্রী তথা আরএসপির নেতা বিশ্বনাথ চৌধুরীর চিকিৎসার জন্য উদ্যোগী হলেন মুখ্যমন্ত্রী। ৭ বারের আরএসপি বিধায়ক দীর্ঘ দিন ধরে ক্যানসারে ভুগছেন।

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

নামী রেস্তোরাঁর বিরিয়ানিতে বিষ রং পুরসভার জরিমানা ৩ লক্ষ টাকা

৩৬৫ দিন।কলকাতা পুরসভার অভিযানে সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য।পার্ক সার্কাসের নামি বিরিয়ানির দোকানে মেশানো হচ্ছে রং।সেই রং যে বিষাক্ত তা ধরা পড়ল পরীক্ষা করে।রেস্তরাঁটির বিরিয়ানির নমুনা

Read More »
বিবি
Avinash

উফ কী গরম ! Part-188

উফ কী গরম ! HOT BIKINI মিডিয়াম জিওভেনালি ৩৬৫ দিন। জনপ্রিয় মডেল তো বটেই।তবে বডি বিল্ডার হিসেবেই বেশি বিখ্যাত তিনি।কিভাবে নিজের শরীর-স্বাস্থ্য সুস্থ রাখেন তিনি

Read More »
Facebook
Twitter
LinkedIn
WhatsApp
Email
Print

হিন্দুজা পরিবারের চার সদস্যের কারাদণ্ড দিল জেনেভার আদালত

দেশে থেকে কাজের লোক নিয়ে পাসপোর্ট কেড়ে বিখ্যাত জেনেভা ভিলায় আটকে রেখে ক্রীতদাসের অত্যাচার

৩৬৫ দিন। হিন্দুজা পরিবারে কর্মরত গৃহপরিচারক বা পরিচারিকাদের সঙ্গে কার্যত ক্রীতদাসের মতো আচরণ করা হত। সেই অপরাধে পরিবারের চার সদস্যকে জেলের সাজা দিয়েছে জেনিভার আদালত।তাঁরা ভারত থেকে সামান্য বেতনে লোক নিয়ে এসে তাঁদের প্রাসাদোপম বাড়িতে গৃহ পরিচারকের কাজ করাতেন। পরিণত করতেন কার্যত ক্রীতদাসে! শ্রম আইনের তোয়াক্কা না করে দৈনিক ১৮ ঘণ্টা পর্যন্ত কাজ করানো হত। সামান্য ভুলচুক করলেই সেই পরিচারকদের অত্যাচারের শিকার হতে হত। এই অভিযোগ সত্যি বলে ধরে নিয়ে জেনেভার আদালতের রায়ে পরিবারের বড় কর্তা প্রকাশ হিন্দুজা,তাঁর স্ত্রী কমল হিন্দুজাকে সাড়ে চার বছরের কারাদণ্ড,এবং প্রকাশ ও কমলের পুত্র অজয় ও পুত্রবধূ নম্রতাকে চার বছরে কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

অভিযোগ ছিল অনেকদিন আগে থেকেই। কিন্তু প্রমাণ ছিল না। গত মাসেই সুইৎজারল্যান্ডের জাতীয় মানবাধিকার সংস্থা এবং শ্রম দফতর হাতে প্রমাণ পায়। দীর্ঘদিন ধরেই হিন্দুজা পরিবার তাঁদের বিখ্যাত জেনেভা ভিলায় কাজের জন্য দেশ থেকে পরিচারিক নিয়ে যেত। তাদের পাসপোর্ট জমা রেখে দেওয়া হত। ওই ভিলার বাইরের জগতের সঙ্গে তাদের কোনও যোগাযোগ রাখতে দেওয়া হত না। বছরের পর বছর ধরে প্রায় কৃতদাসের মতোই ন্যূনতম মাইনেতে কাটতো তাদের জীবন। ভারতীয় মুদ্রায় দৈনিক মাত্র ৭০০ টাকা মাইনে এবং বছরে একবার ৩০০০ টাকা বোনাস তারা পেত,তাও হাতে নয়,কোনও নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্টে। জানা গিয়েছে, ঘটনাচক্রে কোনও এক পরিচারিকার ছোটভাই তার বোনের খোঁজ করছিল অনেক বছর ধরেই। বাড়ির বাইরে একবার বেরোনোর সুযোগ পেয়ে মেয়েটি এক ভদ্রলোককে বাঁচানোর আকুতি করে। ওই ভদ্রলোকের সাহায্যে কোনও ভাবে তার বোন যোগাযোগ করার সুযোগ পায় ভাইয়ের সঙ্গে। এর পরেই ওই ভদ্রলোক মানবাধিকার সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এই ঘটনা জানাজানি হতেই পুলিশ তদন্ত করে,কিন্তু ভয়ে কোনও পরিচারক সাক্ষ্য দিতে আসেনি,বা কথা বলতে রাজি হয়নি। বিষয়টির গুরুত্ব বুঝেই মানবাধিকার সংস্থা আসরে নামে। এক এক করে ২৪ জন পরিচারক মুখ খোলে। অভিযোগ ওঠে তাদের বিপুল টাকার লোভ দেখায় হিন্দুজাদের উকিল। কিন্তু সুইৎজারল্যান্ডের মানবাধিকার সংস্থা ও শ্রম দফতর কড়া হাতে বিষয়টি নিয়ে এগোয়। সে দেশের আইনে মানব পাচারের শাস্তি কিন্তু কঠোরতম। যেভাবে অবৈধভাবে আরব দুনিয়ায় গরীব দেশগুলো থেকে শ্রমিক এনে তার পাসপোর্ট কেড়ে জোর করে কাজ করানো হয়,এটা সেই গোত্রীয় অপরাধ। যদিও কানের পাশ দিয়ে হিন্দুজারা সেই অভিযোগ থেকে মুক্ত হলেও,

সুইৎজারল্যান্ডের বিলাসবহুল জেনেভা ভিলায় পরিচারকদের অবৈধভাবে শোষণের দায়ে ভারতীয় বংশোদ্ভূত কোটিপতি হিন্দুজা পরিবারের চার সদস্যকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছ। তবে এই মামলায় প্রকাশ হিন্দুজা (৭৮) এবং তাঁর স্ত্রী কমল হিন্দুজাকে (৭৫) সাড়ে চার বছর এবং হিন্দুজা দম্পতির পুত্র অজয় এবং পুত্রবধূ নম্রতাকে চার বছরের কারাদণ্ডের সাজা শোনানো হয়েছে। যদিও ব্রিটেনের সবচেয়ে ধনী পরিবার এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে। অভিযোগ ওঠে, দিনে মাত্র ৮ ডলার বা ৭ ফ্রাঙ্ক (ভারতীয় মুদ্রায় যা ৭০০ টাকা) বেতন দিয়ে ভারতীয় পরিচারিকাদের দিনে ১৮ ঘণ্টা কাজ করাত হিন্দুজা পরিবার। যা কি না সুইৎজারল্যান্ডের স্ট্যান্ডার্ড রেটের ১০ ভাগের ১ ভাগ। এদিকে সপ্তাহে সাতদিনই কাজ করতে হত পরিচারিকাদের। কোনও ছুটি দেওয়া হত না তাদের। এমনকী পরিচারিকাদের পাসপোর্ট ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগও ওঠে হিন্দুজা পরিবারের বিরুদ্ধে। পরিচারিকাদের সঙ্গে অমানবিক আচরণ করার অভিযোগ উঠেছে ব্রিটেনের সবচেয়ে ধনী পরিবারের এই চার সদস্যের বিরুদ্ধে। পরিচারিকাদের থেকে নিজেদের পোষ্য কুকুরের ওপরে বেশি খরচ করার অভিযোগ উঠেছে হিন্দুজাদের বিরুদ্ধে। বছরে নাকি ৮৫৪৮ ফ্রাঙ্ক বা ভারতীয় মুদ্রায় ৮ লাখ টাকা নিজেদের পোষ্য কুকুরের জন্যে খরচ করেছে হিন্দুজা পরিবার।

এদিকে হিন্দুজা পরিবার দাবি করে যে তাদের ভিলাতে কাজ করা পরিচারিকারা বিদেশে ভালো জীবনের সুযোগ পেয়েছে তাদের কৃতজ্ঞ থাকা উচিত। আদালতের কারাদণ্ডের সাজায় নাকি হিন্দুজা পরিবার হতবাক। তারা উচ্চ আদালতে এই রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করবে। তাদের দাবি, ভিলার পরিচারিকা যখন ইচ্ছে তখন বাইরে বেরোতে পারেন। এর আগে হিন্দুজা পরিবারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা তিন পরিচারিকার সঙ্গে আদালতের বাইরেই বোঝাপড়া করে নেওয়া হয়েছিল। তবে এই সব অভিযোগের গুরুত্বের জেরে সরকার পক্ষের আইনজীবী মামলা করেন। এদিকে সত্তোরের ওপর বয়সি প্রকাশ এবং কমল হিন্দুজা শারীরিক অক্ষমতার কারণে এই মমালার বিচার প্রক্রিয়ায় অংশ নেননি। এদিকে অজয় এবং নম্রতা এর আগে শুনানিতে হাজির থাকলেও রায়দানের দিনে আদালতে আসেননি।উল্লেখ্য, হিন্দুজা পরিবার ৪৭ বিলিয়ন ডলারের মালিক। জ্বালানি তেল, ব্যাঙ্কিং থেকে স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে তাঁদের ব্যবসা প্রসারিত। মোট ৩৮টি দেশে হিন্দুজারা ব্যবসা চালায়। প্রসঙ্গত এর আগেও হিন্দুজা পরিবার বড় কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছিল। বফর্স কামান কেলেঙ্কারিতে সুইডিশ একটি সংস্থার সঙ্গে যুক্ত হয়ে বিপুল টাকা কামিয়েছিলেন। টাকার অংকে সেটা ৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তদন্তে শ্রীচাঁদ,গোপীচাঁদ এবং প্রকাশ হিন্দুজা তিন ভাই দোষী সাব্যস্ত হন। যদিও অনেক পরে দিল্লি হাইকোর্টের ছাড়পত্র পাওয়ার পরেই তারা দেশ ছেড়ে যায়।

Scroll to Top