হাইলাইট
।।উফ কী গরম ! Part-189।।রাজ্য পুলিশের ডিজি পদে ফিরলেন রাজীব কুমার।।টালা ঝিলপার্ক, রাসেল স্ট্রিট, পাটুলিতে হচ্ছে স্ট্রিট ফুড হাব।।মানবিক মুখ্যমন্ত্রী : প্রাক্তন কারামন্ত্রীর চিকিৎসার দায়িত্ব গ্রহণ।।নামী রেস্তোরাঁর বিরিয়ানিতে বিষ রং পুরসভার জরিমানা ৩ লক্ষ টাকা।।উফ কী গরম ! Part-188।।শপথের জন্য রাজ্যপালকে আর্জি,রাজ্যপাল টালবাহানা করলে শপথ পাঠ করাবেন অধ্যক্ষ।।মিথ্যা ন্যারেটিভ ছড়িয়ে বাংলায় দাঙ্গার চক্রান্ত, অসমের গরু পাচারের ভিডিও হুগলির ঘটনা বলে প্রচার।।আকাশ দখল ঠেকাতে কেএমসি’র নয়া নীতি, তৈরি হবে নো হোর্ডিং জোন।।ত্রাতা মার্তিনেজ, কলম্বিয়াকে হারিয়ে কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা।।গাছেদের সুরক্ষায় কলকাতায় চালু হবে ট্রি অ্যাম্বুলেন্স।।শতবর্ষে বাদল সরকার,শহরে চলছে বাদল থিয়েটার মেলা।।আততায়ী কে? ২০ বছরের মেধাবী ছাত্র টমাস ম্যাথিউ ক্রুকস।।উফ কী গরম ! Part-187।।মার্কিন বন্দুকবাজের হাতে খুন ৪ প্রেসিডেন্ট, ৮ অল্পের জন্য রক্ষা
বিবি
Avinash

উফ কী গরম ! Part-189

উফ কী গরম ! HOT BIKINI নিকোল মিনেতি ৩৬৫ দিন। কম বয়সেই উচ্চতার শিখরে উঠেছিলেন।এক একটা সিঁড়ি পার করে এখন তিনি অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ।টেলিভিশন থেকে

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

রাজ্য পুলিশের ডিজি পদে ফিরলেন রাজীব কুমার

৩৬৫ দিন। ফিরে এলেন রাজীব কুমার। ফিরলেন রাজ্য পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল পদে। লোকসভা নির্বাচনের পরে রাজ্য পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল রাজীব কুমারকে সরিয়ে দিয়েছিল জাতীয় নির্বাচন

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

টালা ঝিলপার্ক, রাসেল স্ট্রিট, পাটুলিতে হচ্ছে স্ট্রিট ফুড হাব

৩৬৫ দিন। কলকাতা শহরের স্ট্রিট ফুডের সংস্কৃতি দীর্ঘদিনের। ডেকারস লেন থেকে শুরু করে টেরিটি বাজারের স্ট্রিট ফুড বিশ্বের যে কোন দেশের স্ট্রিট ফুডের সঙ্গে পাল্লা

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

মানবিক মুখ্যমন্ত্রী : প্রাক্তন কারামন্ত্রীর চিকিৎসার দায়িত্ব গ্রহণ

৩৬৫দিন। মানবিক মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের প্রাক্তন কারামন্ত্রী তথা আরএসপির নেতা বিশ্বনাথ চৌধুরীর চিকিৎসার জন্য উদ্যোগী হলেন মুখ্যমন্ত্রী। ৭ বারের আরএসপি বিধায়ক দীর্ঘ দিন ধরে ক্যানসারে ভুগছেন।

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

নামী রেস্তোরাঁর বিরিয়ানিতে বিষ রং পুরসভার জরিমানা ৩ লক্ষ টাকা

৩৬৫ দিন।কলকাতা পুরসভার অভিযানে সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য।পার্ক সার্কাসের নামি বিরিয়ানির দোকানে মেশানো হচ্ছে রং।সেই রং যে বিষাক্ত তা ধরা পড়ল পরীক্ষা করে।রেস্তরাঁটির বিরিয়ানির নমুনা

Read More »
বিবি
Avinash

উফ কী গরম ! Part-188

উফ কী গরম ! HOT BIKINI মিডিয়াম জিওভেনালি ৩৬৫ দিন। জনপ্রিয় মডেল তো বটেই।তবে বডি বিল্ডার হিসেবেই বেশি বিখ্যাত তিনি।কিভাবে নিজের শরীর-স্বাস্থ্য সুস্থ রাখেন তিনি

Read More »
Facebook
Twitter
LinkedIn
WhatsApp
Email
Print

৫ মাস পর জেল থেকে মুক্ত হেমন্ত সোরেন

দুর্নীতির তথ্য প্রমাণ দিতে পারল না ইডি, ঝাড়খন্ড হাইকোর্টের ভর্তসনা

৩৬৫ দিন। রাঁচি। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট যে সমস্ত কারণ দেখিয়ে ঝাড়খণ্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনকে গ্রেফতার করে রেখেছিল সেই সমস্ত অভিযোগের স্বপক্ষে কোন তথ্য প্রমাণ আদালতের কাছে জমা পড়েনি। এমনকি আয় বহির্ভূত সম্পত্তি ব্যবহার করে সরকারি জমি কম দামে কিনে নিজের দখলে রেখেছেন বলে হেমন্ত সোরেনের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা যে অভিযোগ দায়ের করেছিল তাও ভিত্তিহীন বলে প্রমাণিত হয়েছে তদন্তের পরে। তাই দীর্ঘ পাঁচ মাস হেফাজতে থাকার পরেও তার বিরুদ্ধে কোনো প্রমাণ না আসায় জামিনে মুক্তি দেওয়া ছাড়া অন্য কোন উপায় নেই। এভাবেই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটকে তীব্র ভর্ৎসনা করে ঝাড়খণ্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনকে জামিনে মুক্তি দিল ঝাড়খন্ড হাইকোর্ট।

প্রসঙ্গত, গত ফেব্রুয়ারিতে আদালতের নির্দেশে আস্থাভোটে যোগ দিয়ে দুর্নীতি ইস্যুতে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েছিলেন হেমন্ত সোরেন। ঝাড়খন্ড বিধানসভার অধিবেশন কক্ষে দাঁড়িয়ে হেমন্ত সোরেন বলেছিলেন, সাড়ে ৮ একর জমি কেলেঙ্কারিতে আমায় গ্রেফতার করেছে। যদি আমার নামে নথি দেখাতে পারে, রাজনীতি ছেড়ে দেব। দেশের আদিবাসী, দলিতের উপর অত্যাচার চলছে,রাজনীতিতে পেরে না উঠে পিছন থেকে ছুরি মারছে। আজ হেমন্ত জেল থেকে বেরোনোর পরেই তার স্ত্রী কল্পনা সোরেন বলেন, বহু মাস পর এই দিনটি এসেছে। আমি প্রত্যেককে ধন্যবাদ জানাতে চাই।

প্রসঙ্গত, ৬০০ কোটি টাকার জমি দুর্নীতির অভিযোগ তুলে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা গ্রেপ্তার করেছিল ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনকে। গত ৩১ জানুয়ারি ঝাড়খণ্ডে জমি দুর্নীতি সংক্রান্ত বেআইনি আর্থিক লেনদেনের মামলায় ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা (জেএমএম) নেতা হেমন্তকে গ্রেফতার করেছিল ইডি। গত ১৩ মে বেআইনি আর্থিক লেনদেন প্রতিরোধ আইন বা পিএমএলএ সংক্রান্ত রাঁচির বিশেষ আদালত হেমন্তের জামিনের আবেদন খারিজ করে দেয়। তারপরেই ঝাড়খণ্ড হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করেন তিনি। গ্রেফতারির আগে পদত্যাগ করেন হেমন্ত। তাঁর জায়গায় চম্পাই সোরেন-কে ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী বসিয়ে যান হেমন্ত। স্বামী-র মুক্তির জন্য বহু জায়গায় দরবার করেও ফল পাচ্ছিলেন না হেমন্তের স্ত্রী কল্পনা সোরেন। হেমন্ত গ্রেফতার হলেও,  ঝাড়খণ্ডে লোকসভা ভোটে তার প্রভাব পড়েনি। চলতি বছর নভেম্বরে ঝাড়খণ্ডে ৮১ বিধানসভা আসনে নির্বাচন।

ভাজপা বিরোধীদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র

আজ জেল থেকে মুক্তি পাওয়ার পরে ঝাড়খণ্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন বলেন, মিথ্যা ষড়যন্ত্রে ফাঁসিয়ে আমায় পাঁচ মাস কারাগারের আড়ালে রাখা হয়েছিল। ভাজপার বিরুদ্ধে যে বা যারা আওয়াজ তুলছে তাঁদের জেলে পাঠানো হচ্ছে। আর বিচার ব্যবস্থার গতি এতই ধীর যে দিন বা মাস নয় বছরের পর বছর সময় লেগে যাচ্ছে ন্যায় মিলতে। যারা নিষ্ঠার সঙ্গে সমাজ এবং দেশের উন্নতির জন্যে কাজ করতে চাইছে তাঁদের পথে বাধার সৃষ্টি করা হচ্ছে। আজ সারা দেশের জন্য এটা একটা বার্তা, যে কীভাবে বিরোধীদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে তাঁদের কণ্ঠরোধ করা হচ্ছে। যে লড়াই আমরা শুরু করেছি এবং যে সংকল্প নিয়েছি, আমরা সেগুলি পূরণ করতে কাজ করব।

হেমন্তর মুক্তিকে স্বাগত মমতার

দীর্ঘ পাঁচ মাস পরে ঝাড়খণ্ডের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত আজ জেল থেকে মুক্ত হওয়ার খবর জানার পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তাকে স্বাগত জানান মমতাও। মমতা লেখেন, হেমন্ত সোরেন, একজন গুরুত্বপূর্ণ আদিবাসী নেতা। ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রীকে একটি মামলার জন্য পদত্যাগ করতে হয়েছিল। কিন্তু আজ তিনি মহামান্য উচ্চ আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন! আমি খুবই খুশি এবং আমি নিশ্চিত যে তিনি অবিলম্বে তাঁর কাজ শুরু করতে পারবেন। আমাদের মাঝে তাঁকে আবার স্বাগতম!

স্বাগত জানালো কংগ্রেস ার

ঝাড়খণ্ড হাইকোর্ট জমি কেলেঙ্কারির মামলায় প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনকে জামিন দেওয়ার বিষয়ে, ঝাড়খন্ড প্রদেশ কংগ্রেসের প্রধান রাজেশ ঠাকুর বলেন, এই সিদ্ধান্ত এবং ইডির অনুশীলন স্পষ্ট করে যে ইডি ক্রীতদাস হিসাবে কাজ করছিল। ক্রমাগত মিথ্যা তথ্য নিয়ে তদন্ত প্রক্রিয়া চালাচ্ছিল তারা। আদালত বুঝতে পেরেছে যে তারা এই ভাবে বারেবারে জামিন বাতিল করছে। তাই আজ তাঁদের দাবি গ্রাহ্য হল না। রাহুল গান্ধীর ভারত জোড়ো ন্যায় যাত্রা ঝাড়খণ্ডে প্রবেশের একদিন আগে হেমন্ত সোরেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এটি ছিল অবিচারের উচ্চতম পর্যায়। তাই আমরা হাইকোর্টের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাচ্ছি।

Scroll to Top