হাইলাইট
।।উফ কী গরম ! Part-189।।রাজ্য পুলিশের ডিজি পদে ফিরলেন রাজীব কুমার।।টালা ঝিলপার্ক, রাসেল স্ট্রিট, পাটুলিতে হচ্ছে স্ট্রিট ফুড হাব।।মানবিক মুখ্যমন্ত্রী : প্রাক্তন কারামন্ত্রীর চিকিৎসার দায়িত্ব গ্রহণ।।নামী রেস্তোরাঁর বিরিয়ানিতে বিষ রং পুরসভার জরিমানা ৩ লক্ষ টাকা।।উফ কী গরম ! Part-188।।শপথের জন্য রাজ্যপালকে আর্জি,রাজ্যপাল টালবাহানা করলে শপথ পাঠ করাবেন অধ্যক্ষ।।মিথ্যা ন্যারেটিভ ছড়িয়ে বাংলায় দাঙ্গার চক্রান্ত, অসমের গরু পাচারের ভিডিও হুগলির ঘটনা বলে প্রচার।।আকাশ দখল ঠেকাতে কেএমসি’র নয়া নীতি, তৈরি হবে নো হোর্ডিং জোন।।ত্রাতা মার্তিনেজ, কলম্বিয়াকে হারিয়ে কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা।।গাছেদের সুরক্ষায় কলকাতায় চালু হবে ট্রি অ্যাম্বুলেন্স।।শতবর্ষে বাদল সরকার,শহরে চলছে বাদল থিয়েটার মেলা।।আততায়ী কে? ২০ বছরের মেধাবী ছাত্র টমাস ম্যাথিউ ক্রুকস।।উফ কী গরম ! Part-187।।মার্কিন বন্দুকবাজের হাতে খুন ৪ প্রেসিডেন্ট, ৮ অল্পের জন্য রক্ষা
বিবি
Avinash

উফ কী গরম ! Part-189

উফ কী গরম ! HOT BIKINI নিকোল মিনেতি ৩৬৫ দিন। কম বয়সেই উচ্চতার শিখরে উঠেছিলেন।এক একটা সিঁড়ি পার করে এখন তিনি অত্যন্ত জনপ্রিয় মুখ।টেলিভিশন থেকে

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

রাজ্য পুলিশের ডিজি পদে ফিরলেন রাজীব কুমার

৩৬৫ দিন। ফিরে এলেন রাজীব কুমার। ফিরলেন রাজ্য পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল পদে। লোকসভা নির্বাচনের পরে রাজ্য পুলিশের ডিরেক্টর জেনারেল রাজীব কুমারকে সরিয়ে দিয়েছিল জাতীয় নির্বাচন

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

টালা ঝিলপার্ক, রাসেল স্ট্রিট, পাটুলিতে হচ্ছে স্ট্রিট ফুড হাব

৩৬৫ দিন। কলকাতা শহরের স্ট্রিট ফুডের সংস্কৃতি দীর্ঘদিনের। ডেকারস লেন থেকে শুরু করে টেরিটি বাজারের স্ট্রিট ফুড বিশ্বের যে কোন দেশের স্ট্রিট ফুডের সঙ্গে পাল্লা

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

মানবিক মুখ্যমন্ত্রী : প্রাক্তন কারামন্ত্রীর চিকিৎসার দায়িত্ব গ্রহণ

৩৬৫দিন। মানবিক মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যের প্রাক্তন কারামন্ত্রী তথা আরএসপির নেতা বিশ্বনাথ চৌধুরীর চিকিৎসার জন্য উদ্যোগী হলেন মুখ্যমন্ত্রী। ৭ বারের আরএসপি বিধায়ক দীর্ঘ দিন ধরে ক্যানসারে ভুগছেন।

Read More »
৩৬৫ দিন Exclusive
Avinash

নামী রেস্তোরাঁর বিরিয়ানিতে বিষ রং পুরসভার জরিমানা ৩ লক্ষ টাকা

৩৬৫ দিন।কলকাতা পুরসভার অভিযানে সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য।পার্ক সার্কাসের নামি বিরিয়ানির দোকানে মেশানো হচ্ছে রং।সেই রং যে বিষাক্ত তা ধরা পড়ল পরীক্ষা করে।রেস্তরাঁটির বিরিয়ানির নমুনা

Read More »
বিবি
Avinash

উফ কী গরম ! Part-188

উফ কী গরম ! HOT BIKINI মিডিয়াম জিওভেনালি ৩৬৫ দিন। জনপ্রিয় মডেল তো বটেই।তবে বডি বিল্ডার হিসেবেই বেশি বিখ্যাত তিনি।কিভাবে নিজের শরীর-স্বাস্থ্য সুস্থ রাখেন তিনি

Read More »
Facebook
Twitter
LinkedIn
WhatsApp
Email
Print

ইন্ডিয়া জোটের বিরুদ্ধে চক্রান্ত, ভাজপার দালাল অধীরকে ঘাড়ধাক্কা কংগ্রেসের

লজ্জা ঢাকতে যতই বলুন পদত্যাগ করেছি

পদত্যাগ বা অস্থায়ী সভাপতি নন বাংলায় ইন্ডিয়া জোটের জোটকে ৬ লোকসভায় হারানোর ষড়যন্ত্রী অধীরকে ঘাড় ধাক্কা কংগ্রেস নেতৃত্বের

৩৬৫ দিন। রায়গঞ্জ, পুরুলিয়া, বিষ্ণুপুর, মালদহ উত্তর, তমলুক ও আলিপুরদুয়ার। অন্তত এই ৬ লোকসভা কেন্দ্র এবারে রীতিমতো অ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে ভাজপাকে জিতিয়েছেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী। শুধুমাত্র বাংলা থেকে নিশ্চিতভাবে এই ৬ লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল জয়ী হলে সমানুপাতিক ভাবে লোকসভায় ৬ সংসদ কমে যেত ভারতীয় জনতা পার্টির এবং তৃতীয়বারের জন্য ক্ষমতায় বসা অসম্ভব হয়ে যেত নরেন্দ্র মোদির। এমন অন্তর তদন্তমূলক রিপোর্ট কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি মল্লিকার্জুন খাড়্গে এবং সোনিয়া গান্ধীর কাছে জমা দিয়েছেন বাংলায় নিযুক্ত কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকরা। তারপরেই পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদ থেকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে অধীর রঞ্জন চৌধুরীকে এবং ভেঙে দেওয়া হয়েছে বাংলায় প্রদেশ কংগ্রেস কমিটি।

মুখ বাঁচাতে পদত্যাগের দাবি অধীরের

গতকাল মৌলালি যুব কেন্দ্রে বাংলায় কংগ্রেসের মুখ থুবড়ে পড়ার কারণ পর্যালোচনা করতে কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকদের উপস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেসের যে বৈঠক বসেছিল সেখানে অধীর রঞ্জন চৌধুরী বারেবারে সাফাই দেওয়ার চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছেন তিনি নাকি অস্থায়ী সভাপতি! কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক গোলাম মিল যখন প্রেস কনফারেন্সে জানান বাংলায় নতুন কমিটি তৈরি হবে এবং নতুন সভাপতি দায়িত্ব নেবেন তখন পাশে বসে ও অধীর সাফাই দেওয়ার চেষ্টা করেন, আমি তো এমনিতেই অস্থায়ী সভাপতি। অস্থায়ী সভাপতি হিসাবে আমি কাজ চালাচ্ছিলাম। খাড়গেজি দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে সর্বত্র তাই হয়েছে। সোনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধীকেও জানিয়েছি। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি কে হবেন, নাম চূড়ান্ত করবেন মল্লিকার্জুন খাড়গে-ই। আবার পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেস কমিটি যে ভেঙে দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক দের সামনে তা অস্বীকার করতেও না পেরে কার্যতো সাপের ছোচো গলার মত কিছুটা তোতলাতে তোতলাতে অধীর রঞ্জন চৌধুরীর সাফাই, হন, সেই প্রস্তাব আমরা পাঠাব। পাশাপাশি, এখানকার কমিটির সমস্ত রদবদলের অধিকার খাড়গেজির। রাজ্যে কর্মীদের নিয়ে আরও বিস্তারিত আলোচনা হবে। নাম চূড়ান্ত করবেন খাড়গেজি-ই।

কেন অপসারিত অধীর

দীর্ঘকাল ধরে বাংলায় প্রথমে সিপিএম এবং পরবর্তীকালে সিপিএমকে সঙ্গে নিয়ে ভারতীয় জনতা পার্টির এজেন্ট হিসেবে কাজ করার অভিযোগ উঠেছে অধীর রঞ্জন চৌধুরীর বিরুদ্ধে। কিন্তু তারপরেও বহরমপুরের প্রাক্তন সাংসদকে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদে রেখে দিয়েছিল গান্ধী পরিবার। এবারেও লোকসভা নির্বাচনের আগে যখন ইন্ডিয়া জোট গঠন হয়ে গিয়েছে সেই সময় বাংলায় নিজেদের সংগঠনিক ক্ষমতা না থাকা সত্ত্বেও সিপিএমের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ভারতীয় জনতা পার্টির কাছ থেকে তৃণমূলকে হারানোর অ্যাসাইনমেন্ট হাতে নেন অধীর চৌধুরী। এমনটাই জানতে পেরেছে সর্বভারতীয় কংগ্রেস নেতৃত্ব।

কোন কোন লোকসভায় অন্তর্ঘাত অধীরের

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে শুন্য পেয়েছিল কংগ্রেস। তারপরে হয়ে যাওয়া পৌরসভা নির্বাচন কমপ্লিট স্তর পঞ্চায়েত নির্বাচনে রয়েছে কোন পুরসভা গঠন করতে পারেনি কংগ্রেস অথবা বাংলার একটিও জেলা পরিষদে ক্ষমতায় নেই কংগ্রেস। যেখানে এক একটি লোকসভা কেন্দ্রের অধীনে থাকে সাত বিধানসভা কেন্দ্র এখানে রাজ্যের ২৯৪ বিধানসভা কেন্দ্রে শূন্য হওয়া সত্বেও ইন্ডিয়া জোটের প্রধানতম শরিক তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রার্থী দেওয়ার সময়ই অধীর নিশ্চিত ছিলেন কিছুটা হলেও ভোট কাটার জন্য। অর্থাৎ তৃণমূলের সঙ্গে ভাজপার ভোটের ব্যবধান কমানোর জন্য যদি কয়েকটা ভোট কেটেও তৃণমূলের যাত্রা ভঙ্গ করা যায়! প্রথমেই ধরা যাক বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর লোকসভা কেন্দ্রের কথা। এখানে তৃণমূল প্রার্থী সুজাতা মন্ডল পরাজিত হয়েছেন মাত্র ৫৫৬৭ ভোটের ব্যবধানে। যেখানে কণ্ঠের সমর্থিত সিপিএম প্রার্থী ভোট কেটেছেন ১,০৫,৪১১।

এর পরেই আসছে উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্র। তৃণমূলের কৃষ্ণ কল্যাণীকে ভাজপার কার্তিক পাল হারিয়েছেন মাত্র ৬৮,১৯৭ ভোটে। অথচ কংগ্রেস প্রার্থী আলি ইমরান রামজের (ভিক্টর) ভোট ২,৬৩,২৭৩। অর্থাৎ আজ অবিরোধী ভোট যদি তৃণমূলের ঘরে পড়তো তাহলে খুব সহজেই ভারতীয় জনতা পার্টির আরও একটি আসন কমতো। ৪ জুন লোকসভা ভোটের ফল প্রকাশ হওয়ার পরে রায়গঞ্জ প্রসঙ্গে মমতা বলেন, আমি এখনও মনে করি, বিজেপিকে এখানে সাপোর্ট করে সিপিএম এবং কংগ্রেস। আরেকটা মুসলিম পার্টি আছে। আমি বলবো নিজের নাক কেটে পরের যাত্রাভঙ্গ করবেন না। যেটা করেছেন উত্তর দিনাজপুরে। বিজেপির সিট বাড়িয়ে কী লাভ হল? বিজেপির এই আসনটা কমলে ওঁদের মাইনাস হত আরও। একই ঘটনা ঘটেছে মালদহ উত্তর লোকসভা কেন্দ্রেও। এখানেও তৃণমূলের ভোট কেটে ভারতীয় জনতা পার্টিকে অল্প ব্যবধানে জিতিয়ে দিয়েছে কংগ্রেস। পুরুলিয়া লোকসভা কেন্দ্র থেকে তৃণমূল প্রার্থী শান্তিরাম মাহাতো ভারতীয় জনতা পার্টির কাছে হেরে গিয়েছেন মাত্র ১৭ হাজার ভোটের ব্যবধানে। যেখানে কংগ্রেস প্রার্থী নেপাল মাহাতো ভারতীয় জনতা পার্টি বিরোধী ভোট কেটেছেন ১,২৯,১৫৭। পাঁচ বছর আগে আলিপুরদুয়ারে ভাজপা যেখানে প্রায় আড়াই লক্ষ ভোটের ব্যবধানে জয়ী হয়েছিল, সেখানে এবার ভাজপা প্রার্থী মনোজ টিগ্গা ৭৫ হাজার ভোটের ব্যবধানে জিতেছেন। তমলুক লোকসভা কেন্দ্রে তৃনমূলের পরাজয়ের ব্যবধানের থেকে বেশ কিছু বেশি ভোট কেটে ভাজপার জয়ের পথ মসৃণ করে দিয়েছে কংগ্রেস সিপিএম জোট।

প্রদেশ কংগ্রেস সূত্রে খবর, নতুন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদে ৩ নাম উঠে আসছে। একটি হল মালদহ-দক্ষিণ কেন্দ্রের বর্তমান লোকসভা সাংসদ, বাংলায় কংগ্রেসের একমাত্র লোকসভা সাংসদ ঈশা খান চৌধুরী। দ্বিতীয়ত, বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য এবং নেপাল মাহাতো।

Scroll to Top